Nabodisha
 
Nabodisha patrika
পথ চলার ভাবনা 
শিক্ষায় সংস্কৃতি 
শিক্ষার দর্শন 
সমাধানের খোঁজে 
নতুন দিশার 
নতুন উদ্যোগ 
শিক্ষার দর্শন
যে ভাবনা নিয়ে আমরা পথ চলা শুর করেছি তার মূল ভিত্তি কিন্তু কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শিক্ষা-দর্শন। আজ থেকে অনেক বছর আগে শিক্ষায় নবদিশা দেখিয়েছিলেন তিনি। তাঁর হাত ধরে একসময় যাত্রা শুরু করেছিল শ্রীনিকেতন, নতুন শিক্ষা-ভাবনার অনন্য এক পীঠস্থান। শুধু তাই নয়, তাঁর উদ্যোগেই প্রসার লাভ করে শান্তিনিকেতনও। পরে গোটা বিশ্বে তার খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। তিনিই শিখিয়েছিলেন, প্রথাগত শিক্ষাকে স্কুলের চার দেওয়ালের বাইরে এনে কীভাবে তাকে জীবনের সঙ্গে যুক্ত করে আরও আনন্দদায়ক করে তোলা যায়। তাঁর শিক্ষা-দর্শনে জায়গা পেয়েছিল হাতে-কলমে শিক্ষা। পাশাপাশি জীবন উপযোগী কর্মমূলক পাঠের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে তিনি আশ্রমিকদের জন্য বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা বৃদ্ধিরও ব্যবস্থা করেছিলেন।
পরবর্তী সময়ে অনেকবার কবিগুরুর এই শিক্ষা-ভাবনার উপযোগীতা দেশের শিক্ষানীতি নির্ধারকদের আলোচনায় উঠে এসেছে। কিন্তু প্রথাগত শিক্ষাব্যবস্থাকে কখনও সেভাবে ভাবা হয়নি। আজ অনেক বছর পর, ২০০৫ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই শিক্ষা-দর্শন জায়গা পেয়েছে জাতীয় পাঠক্রম রূপরেখায়। নতুন করে গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে হাতে-কলমে, আনন্দদায়ক শিক্ষার উপর। এই জাতীয় পাঠক্রম রূপরেখায় খুব সুস্পষ্টভাবে শিক্ষার প্রসারে স্থানীয় স্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের ভূমিকার কথাও উল্লেখ রয়েছে। এই শিক্ষা-ভাবনা অনুসরণ করে আমরাও নতুন দিশার সন্ধানে পথ চলতে আরম্ভ করি।
 
  আমাদের কথা আমাদের কাজকর্ম তথ্যসামগ্রী পথিকদের প্রতি
নবদিশা ২০১৯